Home / Exception / এক শরীরে দুটো মাথা,চারটে হাত, অবলীলায় চালাচ্ছে স্কুটি! সোস্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল সেই বিস্ময়কর ভিডিও

এক শরীরে দুটো মাথা,চারটে হাত, অবলীলায় চালাচ্ছে স্কুটি! সোস্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল সেই বিস্ময়কর ভিডিও

মানুষের অসাধ্য কিছুই নেই, তা আবারো প্রমাণ হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করা কিছু ভিডিওতে।এই রকমই একটি ভিডিও সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখা যাচ্ছে যা দেখে যে কেউ হতবাক হয়ে যেতে পারে। ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে একটি পেট্রোল পাম্প, যেখানে স্কুটি নিয়ে তেল ভরতে এসেছেন জনৈক এক ব্যক্তি, সরি বলা ভালো দুই ব্যক্তি। আমরা অনেক সময় যমজ সন্তানের কথা শুনে থাকি।

কিন্তু যে যমজ সন্তান একই দেহে দুটি প্রাণ নিয়ে জন্মগ্রহণ করেন, তাদের শারীরিক সমস্যা থাকে।এই দুটি মানুষের একই শরীর নিয়ে জন্মগ্রহণ করার ঘটনাটা খুবই বিরল দেখা যায়।বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই জন্মগ্রহণের কয়েক মাসের মধ্যেই মারা যায় সেই শিশু।কিন্তু কোন কোন সময় আবার ভগবানের আশীর্বাদে বহু দিন বেচে থাকেন একই শরীর নিয়ে জন্মগ্রহণ করা দুই ব্যক্তি। এ রকমই থাকে শরীরে দুটি ব্যক্তি স্কুটি চালিয়ে যাবার ভিডিও সম্প্রতি সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হয়েছে।

স্কুটি নিয়ে পেট্রোলপাম্পে ব্যক্তি দুটি আসার পর সেখানে দাঁড়িয়ে থাকা মানুষেরা তাদের দেখে হতবাক হয়ে যায়। কিভাবে এই শরীর নিয়ে স্কুটি চালানো সম্ভব, তা নিয়ে চিন্তায় পড়ে যায় অনেকেই। ভিডিওটি দেখলে বোঝা যাবে যে, ব্যক্তি রুটি যে মানুষটি অপরদিকে রয়েছেন তিনি স্কুটি স্টার্ট দিচ্ছেন, এবং যে ব্যক্তি তলার দিকে রয়েছেন তিনি হ্যান্ডেল চালিয়ে স্কুটি দিকে নিয়ে যাচ্ছেন। এভাবে স্কুটি চালানোর জন্য হয়তো তাদের বহু পরিশ্রম করতে হয়েছে।

তবে জীবনে অন্য কারোর ওপর নির্ভরশীল না হয়ে কঠোর পরিশ্রমের দ্বারা নিজের কাজ নিজে করে ফেলার যে আনন্দ, তা হয়তো মুখে প্রকাশ করা যাবে না।আমরা সুস্থ স্বাভাবিক জীবন প্রিয় সব সময় ভগবানের কাছে নালিশ জানাচ্ছি যে আমরা সুখী নয়। কিন্তু এইসব মানুষেরা অর্ধজীবন পেয়েও কিভাবে তাতেই সুখী থাকা যায় তা আবার আমাদের শিখিয়ে দেয়। ভিডিওটি সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হতেই এই দুই ব্যক্তির সুস্থ স্বাভাবিক জীবনের জন্য প্রার্থনা করেছে নেটিজেনরা।

দেখুন সেই ভিডিও

Check Also

৪১ বছরের বনবাস, নারীই চেনেন না বাস্তবের এই ‘টারজান’

মানবসভ্যতা নিয়ে কোনো ধারণা নেই। এমনকি পৃথিবীতে যে নারী থাকতে পারে, সেটাও তার অজানা। বলা ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *