Home / Videos / সারা দেশকে শোনান গান তবে ছেলেকে কোলে বসিয়ে গানটা আলাদাই! শ্রেয়া ঘোষালের দিকে বিস্ময় ভরা চোখে তাকিয়ে রয়েছে ছোট্ট দেবায়ন, রইলো ভাইরাল ভিডিও

সারা দেশকে শোনান গান তবে ছেলেকে কোলে বসিয়ে গানটা আলাদাই! শ্রেয়া ঘোষালের দিকে বিস্ময় ভরা চোখে তাকিয়ে রয়েছে ছোট্ট দেবায়ন, রইলো ভাইরাল ভিডিও

এখন চলছে এই উৎসবের মৌসুম। প্রায় গোটা দেশ জুড়ে চলছে দীপাবলি উদযাপন। তবে দেশের বাইরে যেসব প্রবাসী ভারতীয়রা রয়েছে,

তারাও এই আলোর উৎসবে মেতে উঠেছে। তবে শুধু সাধারণ মানুষই নয় বলিউড টলিউডের সব বড় বড় তারকারাও নিজেদের মতো করে,

দিপাবলি উদযাপন করছে। কাউকে দেখা যাচ্ছে নিজের বাড়িতে পূজা করতে আবার কাউকে দেখা যাচ্ছে নিজের বাড়িতে বড় দিওয়ালি,

পার্টি আয়োজন করতে। আবার কেউ নিজের বাড়ি সুন্দর করে সাজিয়ে পরিবারের লোকজনের সঙ্গেই সময় কাটাচ্ছেন। এসব কিছুর মধ্যেই বলিউডের একজন বিখ্যাত গায়িকা শ্রেয়া ঘোষালও নিজের ভক্তদেরকে দীপাবলীর শুভেচ্ছা জানালেন একদম অন্য ভঙ্গিমায়। একজন এত বড় গায়িকা, যার সুরের জাদুতে মুগ্ধ গোটা দেশ তথা পৃথিবী। সে গান ছাড়া আর কি বা দিতে পারে তার ভক্তদের উদ্দেশ্যে। সম্প্রতি এমন একটি গানের ভিডিও তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছেড়ে তার অনুরাগীদেরকে দিওয়ালির শুভেচ্ছা দিয়েছেন। যা রীতিমতো প্রশংসায় ভরিয়েছে তার অনুরাগীরা। এই ভিডিওতে তার সাথে তার ছোট ছেলে দিব্যানকেও দেখা গেছে। আর নেট নাগরিকরা ছোট ছেলেকে দেখেও প্রশংসায় ভরিয়েছেন।

ছেলেকে কোলে বসিয়ে গান শোনাচ্ছেন শ্রেয়া, মন মন্দিরা এই গানটি গেয়ে তিনি সকলকে দীপাবলীর শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। মায়ের গান শুনে ছেলে তো একেবারে অবাক হয়ে বিস্ময় ভরা চোখে মায়ের দিকে তাকিয়ে রয়েছে, আর সেটা দেখে দর্শকরা এই ভিডিওতে একাধিক ভালবাসাময় কমেন্টে ভরিয়ে দিয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিওটি পোস্ট হতেই সঙ্গে সঙ্গে ভাইরাল হয়ে গেছে।প্রসঙ্গত শ্রেয়াকে এদিন দেখা গেছে একটি নীল রঙের শাড়িতে সুন্দর করে সেজে থাকতে এবং তার ছেলের দিব্যিয়ানকে দেখা গেছে এটি পাঞ্জাবী পড়তে। তোর ছোট ছেলেকে এত সুন্দর করে দেখে নেটিজেনরা ভালোবাসায় ভরিয়ে দিয়েছেন।

Check Also

খুবই অল্প টাকাই, অসম্ভব সুন্দর বাড়ি বানানোর সহজ ডিজাইন! যা তুমুুল ভাইরাল নেটদুনিয়ায়। রইল স্টেপ বাই স্টেপ পদ্ধতি

মাটির ঘর এখন রূপকথার গল্পের মত হয়ে গেছে। কেননা বর্তমানে দশ গ্রাম খুঁজেও একটি মাটির ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *