Home / News / যোগ্যতা নিয়ে ঠাট্টা, একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হলেন ঝাড়খণ্ডের শিক্ষামন্ত্রী

যোগ্যতা নিয়ে ঠাট্টা, একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হলেন ঝাড়খণ্ডের শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রীর দৌড় মাত্র ক্লাস টেন পর্যন্ত! এমন টিটকিরি প্রায়ই শুনতে হতো ঝাড়খণ্ডের শিক্ষামন্ত্রী জগরনাথ মাহাতোকে। শিক্ষাগত যোগ্যতা এত কম থাকা সত্ত্বেও কী করে তিনি রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী হলেন তা অন্য প্রসঙ্গ, তবে এই লাগাতার টিটকিরির কারণে এবার নতুন করে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হয়েছেন মন্ত্রী। প্রমাণ করে দিয়েছেন, শেখার কোনো বয়স নেই। খবর দ্য ওয়ালের।

ঝাড়খণ্ডের শিক্ষার উন্নতির জন্য রাজ্য জুড়ে নতুন মডেল স্কুল খু’লছে সরকার। সোমবার সাংবাদিকদের সামনে সে বিষয়ে ঘোষণা করতে আসেন জগরনাথ মাহাতো। তখনই সকলে চমকে দিয়ে ঘোষণা করেন, তিনি স্কুলে ভর্তি হচ্ছেন আবার।

সূত্রের খবর, ৫৩ বছরের এই মন্ত্রী তার নিজেরই বিধানসভা, বোকারো জেলার দুমরি এলাকার নাবাডিহতে সরকারি ইন্টার-কলেজ দেবী মাহাতো মহাবিদ্যালয়ে আর্টস নিয়ে ভর্তি হয়েছেন৷ ভর্তি হওয়ার পরে জগরনাথ জানিয়েছেন, এবার তিনি মন দিয়ে পড়াশোনা করবেন। সেই সঙ্গে রাজ্যের শিক্ষাব্যবস্থাকেও আরও মজ’বুত করার চেষ্টা করবেন।

১৯৯৫ সালে চন্দ্রপুরার নেহেরু স্কুল থেকে সেকেন্ড ডিভিশনে মাধ্যমিক পাশ করেছিলেন জগরনাথ মাহাতো। তারপর আর লেখাপড়া করেননি তিনি। কিন্তু এতদিন পরে কেন এই সিদ্ধান্ত? জগরনাথ বলেন, ‘আমি যেদিন শিক্ষামন্ত্রীর পদে শপথ নিই, অনেকেই তখন বলেছিলেন, একজন ক্লাস ১০ পাশ মানুষ আর রাজ্যের শিক্ষার অগ্রগতি নিয়ে কী কাজ করবেন৷ সেই সমস্ত মানুষদের জবাব দেওয়ার জন্যই আমি ফে’র ভর্তি হয়েছি পড়াশোনা করতে। পড়াশোনার কোনো বয়স হয় না। আমি ভাল রেজাল্ট করে দেখিয়ে দেব।’

শুধু তাই নয়, নিজে ক্লাস টে’নের বিদ্যা নিয়ে কী করে রাজ্যের শিক্ষা দফতর সা’মলাবেন, সে প্রশ্নের মুখে তাকে বারবারই পড়তে হয়েছে নানা সময়ে। তাই সব ভুলে গিয়ে পড়াশোনাটা আবার নতুন করে করবেন বলে ঠিক করেছেন।

পড়াশোনার পাশাপাশি চাষাবাদও করবেন বলে জানিয়েছেন জগরনাথ, সেই সঙ্গে মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব সা’মাল দেওয়ার পাশাপাশি মানুষের জন্য কাজও করবেন। সকলে যাতে তাকে দেখে অ’নুপ্রা’ণিত হয়, সেই চেষ্টাই করবেন বলে জানিয়েছেন জগরনাথ।

Check Also

তাইওয়ান এ মাছের জাক এই খান থেকে তাজা মাছ অবিনব পদ্ধতিতে রান্না করে পরিবেশন করে যা দেখতে খুবই মনোমুগ্ধকর তুমুল ভাইরাল ভিডিও

সোস্যাল মিডিয়ায় এখন আশ্চর্যজনক ঘটনা দিলেই ভাইরাল হয়ে যায়। এখনকার যুগে প্রতিনিয়ত ভালো, খারাপ দুটোই ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *