Home / News / ঢেঁড়স খাওয়ার এই ৬টি জাদুকরী উপকারিতা যা সবাই না জানলেও আপনি অন্তত জেনে নিন…..

ঢেঁড়স খাওয়ার এই ৬টি জাদুকরী উপকারিতা যা সবাই না জানলেও আপনি অন্তত জেনে নিন…..

চলুন আজকে আমরা ঢেড়স খাওয়ার কিছু উপকারিতা জেনে নেই।ঢেড়সে রয়েছে প্রচুর মাত্রায় ফাইবার, ভিটামিন এ, সি এবং ফলেট। সেই সঙ্গে রয়েছে ভিটামিন কে, বি, আয়রন, পটাশিয়াম, জিঙ্ক, ক্যালসিয়াম, মেঙ্গানিজ, ম্যাগনেসিয়াম, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং বিটা ক্যারোটিন।
১।ফলেটের ঘাটতি মেটায়
শরীরকে সচল এবং রোগমুক্ত রাখতে নিয়মিত যে যে উপাদানগুলোর প্রয়োজন পরে, ফলেট তার মধ্যে অন্যতম। তাই তো দেহের ভেতরে এই উপাদানটির ঘাটতি হওয়া একেবারেই উচিত নয়। এই কারণেই তো প্রতিদিন ঢেঁড়স খাওয়া উচিত। কারণ এই সবজিটির ভেতর রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফলেট, যা দেহের চাহিদা মেটাতে ভূমিকা পালন করে।

২।কনস্টিপেশনের প্রকোপ কমায়
ঢেঁড়সের শরীরে থাকা ফাইবার শুধুমাত্র হার্টের খেয়াল রাখে না, সেই সঙ্গে বাওয়েল মুভমেন্টে উন্নতি ঘটানোর মধ্যে দিয়ে কনস্টিপেশন, বদ–হজম এবং গ্যাস–অম্বলের মতো রোগের প্রকোপ কমাতেও ভূমিকা পালন করে। প্রসঙ্গত, একাধিক কেস স্টাডিতে দেখা গেছে যদি নিয়মিত ঢেঁড়স খাওয়া যায়, তাহলে কোলন ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা অনেকাংশেই হ্রাস পায়।

৩।ক্যান্সার প্রতিরোধ করে
প্রচুর মাত্রায় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকার কারণে প্রতিদিন এই সবজিটি খেলে একদিকে যেমন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নতি ঘটে, তেমনি কোষেদের বিভাজনও ঠিক ঠিক নিয়ম মেনে হওয়ার সুযোগ পায়। কারণ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আমাদের শরীরে উপস্থিত ক্ষতিকর টক্সিক উপাদানদের কোষেদের গঠনে পরিবর্তন করার কোনও সুযোগই দেয় না। ফলে ক্যান্সার সেল জন্ম নেওয়ার আশঙ্কা অনেকাংশেই হ্রাস পায়। প্রসঙ্গত, কোষেদের এই ভাবে চরিত্র বদল করে ক্ষতিকর কোষে রূপান্তরিত হওয়াকে “মিউটেশন অব সেল” বলা হয়।

৪।ওজন নিয়ন্ত্রণে চলে আসে
অতিরিক্ত কারণে যদি চিন্তায় থাকেন, তাহলে প্রতিদিনের ডায়েটে ঢেঁরসের অন্তর্ভুক্তি মাস্ট! কারণ এই সবজিটির ভেতর থাকা ফাইবার অনেকক্ষণ পেট ভরিয়ে রাখে। ফলে অতিরিক্ত খাবার খাওয়ার প্রবণতা যেমন কমে। সেই সঙ্গে বারে বারে খাওয়ার ইচ্ছাও চলে যায়। ফলে ওজন বাড়ার আশঙ্কা একেবারে কমে যায়।

৫।অ্যানিমিয়ার প্রকোপ কমায়
এতে উপস্থিত বেশ কিছু পুষ্টিকর উপাদান শরীরে লোহিত রক্ত কণিকার উৎপাদন বাড়িয়ে দেয়। ফলে অ্যানিমিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা অনেকাংশে হ্রাস পায়। প্রসঙ্গত, ভারত, বাংলাদেশ, মায়ানমার এবং দক্ষিণ এশিয়ার একাধিক দেশে মহিলাদের মধ্যে এই রোগের প্রকোপ গত কয়েক দশকে মারাত্মকভাবে বৃদ্ধি পয়েছে। আমাদের দেশে তো অ্যানিমিয়ার প্রকোপ কমাতে বিশেষ নীতিও গ্রহণ করেছে সরকার। এমন পরিস্থিতে এই সবজিটি কতটা কাজে আসতে পারে, তা নিশ্চয় আর বলে বোঝাতে হবে না।

৬। খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়
শরীরে উপস্থিত বাজে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমানোর মধ্যে দিয়ে হার্টকে সুস্থ রাখতে ঢেঁড়সের কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। আসলে এই সবজিটি ফাইবার সমৃদ্ধি। তাই এই সবজি কোলেস্টোরল কমাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে।

Check Also

সাদা-কালো এই ছবিতে গাছের শাখা-প্রশাখায় লুকিয়ে মোট কতগুলি প্রাণী? খুঁজে বের করুন তো

সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে এখন ‍‍`অপটিক্যাল ইলিউশন‍‍` জাতীয় ছবি বা ভিডিওর সঙ্গে সকলেই বেশ পরিচিত। মস্তিষ্কের ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *